দক্ষিণ বাংলার ইতিহাস প্রখ্যাত একটি উপজেলা ভান্ডারিয়া। এখানে উচ্চশিক্ষা প্রসারের স্বপ্নদ্রষ্টা প্রায়তঃ বাবু রাজেন্দ্র কুমার শীল সহ কিছু সংখ্যক মহানুভব ও বিদ্যোৎসাহী ব্যক্তির নিরলস প্রচেষ্টার ফসল এই ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজটি ১৯৭০ সালে আত্মপ্রকাশ করে। ১৯৮৫ সালে অনেক আশা ভরসা নিয়ে কলেজটি সরকারিকরণ হয় বটে, কিন্তু ছাত্র, শিক্ষক এবং অবকাঠামোগত সংকটের কারণে সে আশার উজ্জ্বল আলো প্রজ্জলিত হয়নি। শিক্ষক সংকট এখানে এত তীব্র যে, এর প্রভাবে ভান্ডারিয়া কলেজ প্রতিষ্ঠার যে লক্ষ ছিল তা এখন ম্লান হতে চলেছে। শিক্ষক সংকটের কারণে বিজ্ঞান শিক্ষা প্রায় অচল। অন্যান্য বিভাগের ফলাফল বিপর্যয়ের সম্মুখীন। এক কথায় বলা যায় শিক্ষক সংকটের কারণে কলেজটি বর্তমানে কোন রকমে খুঁড়িয়ে খুঁড়িয়ে চলছে।

তাই এ সংকট থেকে উত্তোরনের জন্য শিক্ষা বিভাগের উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষের অতি কার্যকরী ব্যবস্থা গ্রহণের দৃষ্টি কামনা করছি। আর যাদের অক্লান্ত পরিশ্রম ও ত্যাগ তিতিক্ষায় এই কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছে তাঁদের এই অসামান্য অবদানকে সামান্য ধন্যবাদ দিয়ে সীমাবদ্ধ করবোনা। শুধু এটাই বলব যে, তাঁরা অসাধারণ! আমি আশা করব, যে গভীর আশা ভরসা নিয়ে পোনা নদীর তীরে সবুজ শ্যামলিমায় ঘেরা পরিবেশে কলেজটি প্রতিষ্ঠিত হয়েছিল… তা যেন দল মতের উর্দ্ধে থেকে সকলের সহযোগিতায় উত্তোরত্তর আরও প্রসারিত হতে পারে।

কৃষিবিদ প্রফেসর এমডি মাহবুব আলম
অধ্যক্ষ, ভান্ডারিয়া সরকারি কলেজ